• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

অপ্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নার্স দ্বারা প্রসূতি রোগীকে ডেলিভারি করানোর সময় বাচ্চার কপাল কেটে ফেলা হল

পোস্ট করেছেন: / ১৯২ বার পড়া হয়েছে:
পোস্ট করা হয়েছে: শনিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২২

অপ্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নার্স দ্বারা প্রসূতি রোগীকে ডেলিভারি করানোর সময় বাচ্চার কপাল কেটে ফেলা হল

মানিক দাস,ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি : অপ্রশিক্ষণ প্রাপ্ত নার্স দ্বারা প্রসূতি রোগীকে ডেলিভারি করার সময় নবজাতকের কপাল কেটে ফেলার ঘটনা ঘটেছে। শহরের আল-মদিনা প্রাইভেট লিমিটেড হাসপাতালে আজ শনিবার সকাল ৮ টায় এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ফরিদপুর শহরস্থ পশ্চিম খাবাসপুর ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর সামনে আল – মদিনা প্রাইভেট হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিমিটেড এ রোগী রুপা বেগম স্বামী শফিক খান সাং- দক্ষীন উজানচর ময়েজউদ্দিন মন্ডল পাড়া পোষ্টঃ গোয়ালন্দ থানাঃগোয়ালন্দ জেলাঃ রাজবাড়ী কে নিয়ে আসলে এখানকার কর্তৃপক্ষ কোন ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই অপ্রশিক্ষণ প্রাপ্ত সার্টিফিকেট বিহীন নার্স চায়না খানম কর্তৃক উক্ত বাচ্চার ডেলিভারি করানো হলে বাচ্চার মাথার কপাল কেটে ফেলে মাথায় ৯ টি সেলাই করেন। এব্যাপারে উক্ত প্রতিষ্ঠানের কর্তব্যরত চিকিৎসক নুসরাত জাহান জানান এ ব্যাপারে তাকে কিছুই জানানো হয়নি এবং তিনি এ হাসপাতালে ডেলিভারি করেন না। দিনে তিনবার রোগীদের পরিদর্শন করেন।

ঘটনাস্থলে ফরিদপুর সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সিদ্দিকুর রহমান,ফরিদপুর সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ মাসুদ আলম,সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন রঞ্জন সরকার পরিদর্শন করে উক্ত প্রতিষ্ঠানের পরিচালক সহ ০২ জনকে আটক করেন আটককৃতরা হলো ১।মোঃ জাকারিয়া মোল্লা পলাশ(৫০) পিতা- মৃত আতিয়ার রহমান মোল্লা সাং কোমরপুর কোতোয়ালী ফরিদপুর ২। চায়না রহমান (৪৫) স্বামী -,মোঃ মামুন সাং ধূলদি কতোয়ালী ফরিদপুর। এ ব্যাপারে কতোয়ালী থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আল মদিনা হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার লিঃ এর কর্তৃপক্ষের অনিয়মে ও গাফিলতির কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে সাধারণ মানুষ মনে করেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ
https://slotbet.online/