• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:৪৭ পূর্বাহ্ন

ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে কাঁচা ধান কেটে প্রতিপক্ষ কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

পোস্ট করেছেন: / ৪২০ বার পড়া হয়েছে:
পোস্ট করা হয়েছে: শনিবার, ২ অক্টোবর, ২০২১
ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে কাঁচা ধান কেটে প্রতিপক্ষ কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি
ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে কাঁচা ধান কেটে প্রতিপক্ষ কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে কাঁচা ধান কেটে প্রতিপক্ষ কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি

মাসুদ হাওলাদার , সদরপুর উপজেলা প্রতিনিধি : ফরিদপুরের ভাঙ্গায় পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের কাচা ধান কেটে সাবাড় করে দিয়েছে একই এলাকার শাহজাহান গং। সরেজমিনে যেয়ে দেখা যায়, ভাঙ্গা উপজেলার মানিকদহ ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর গ্রামের মৃত জয়নুদ্দিন মাতুব্বরের পুত্র আবুল কালাম মাতুব্বরের সাথে একই গ্রামের মৃত আলীমদ্দিন মাতুব্বরের পুত্র শাহজাহান মাতুব্বরের বিরোধ অনেক আগ থেকেই চলে আসছিলো।(বিস্তারিত ভিডিওতে)

 

সম্প্রতি লক্ষ্মীপুর গ্রামে আবুল কালাম মাতুব্বরের পারিবারের প্রদত্ত সম্পত্তির উপর একটি জামে মসজিদ নির্মিত হলে কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তিনি উক্ত মসজিদের সভাপতির দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। এতে শাহজাহান মাতুব্বর তার প্রতিপক্ষের উপর আরও বেশি ক্ষিপ্ত হয়ে পড়েন এবং কালাম মাতুব্বরকে নানাভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিতে থাকেন বলে জানিয়েছেন আবুল কালাম নিজেই।

এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৯ সেপ্টেম্বর (রবিবার) সকাল আনুমানিক সাড়ে ১১ টার সময় শাহজাহান মাতুব্বর তার স্বদল বলে কালাম মাতুব্বরের মায়ের মসজিদে দান করা ২৩ শতক জমির কাচা ধান কেটে ফেলেন। খবর পেয়ে কালাম মাতুব্বর লোকজন নিয়ে বাধা প্রদান করতে গেলে প্রতিপক্ষ নানা ধরনের হুমকি প্রদান করলে প্রাণ ভয়ে কালাম মাতুব্বর সেখান থেকে ফিরে আসেন।

কালাম মাতুব্বর বলেন, “শাহজাহান মাতুব্বর বেশ যুদ্ধ-বাজ লোক। ইতিপূর্বে তিনি অনেক লোকজনকে নানান ধরনের হুমকি ও মারধর করেছেন। তার বিরুদ্ধে এলাকায় অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে। তার এইসব অপকর্ম নিয়ে মুখ খুললেই তিনি অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেন। তার এইসব অপকর্মের অন্যতম সহযোগী লক্ষ্মীপুর গ্রামের রইচ শেখ, ছলেমান শেখ, সিদ্দিক শেখ, আরিজুল শেখ ও চান্দু মুন্সি।”

তাদের বিরুদ্ধে ভাঙ্গা থানায় লিখিত একটি অভিযোগ ও করেছেন বলে জানিয়েছেন আবুল কালাম মাতুব্বর। এদিকে এই অভিযোগের বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত শাহজাহান মাতুব্বরের সাথে দেখা করতে গেলে তাকে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। একাধিক বার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

অভিযোগ সম্পর্কে ভাঙ্গা থানা উপ-পরিদর্শক শহিদুল ইসলাম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “উক্ত বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতের কাছে নন এফ আই আর প্রসিকিউশন (prosecution) দাখিল করা হয়েছে। আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।”


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ
https://slotbet.online/