• রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ন

ভাঙ্গায় প্রভাবশালী দ্বারা প্রতিবেশীর জায়গা দখল করে ঘর নির্মানের অভিযোগ

পোস্ট করেছেন: / ১৬৯ বার পড়া হয়েছে:
পোস্ট করা হয়েছে: মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১

ভাঙ্গায় প্রভাবশালী দ্বারা প্রতিবেশীর জায়গা দখল করে ঘর নির্মানের অভিযোগ

মাহমুদুর রহমান (তুরান),ভাঙ্গা প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার হামিরদী ইউনিয়নের হামিরদী গ্রামে প্রভাবশালীর বিরুদ্বে জোর জবরদস্তির মাধ্যমে প্রতিপক্ষের জায়গা দখল করে ঘর নির্মান করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে প্রকাশ ওই গ্রামের মীর হায়দার আলীর ছেলে মীর ইয়াসিন ২৮ নং নওপাড়া মৌজার ব্এিস ১৭৫২ নং খতিয়ানের ৩৮০, ১০৩৪ খতিয়ানের ৩৭৮,১১৯২ নং খতিয়ানে ৩৭৯ ,১২১৫ নং খতিয়ানে ৩৭৯ নং দাগের ক্রয় ও পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ৫ শতাংশ জমি ভোগ দখল করে আসছিলেন। কিন্ত একই গ্রামের প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ মোহাম্মদ সায়েম মাতুব্বর ওই জমিতে বিল্ডিং নির্মান করতে থাকে।

মীর ইয়াসিন বাধা দিতে গেলে প্রতিপক্ষরা সংঘবদ্বভাবে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নির্মান কাজ অব্যাহত রাখে। মীর ইয়াসিন অভিযোগ করে বলেন, রাস্তার পাশে প্রতিপক্ষ সায়েম মাতুব্বরের জমির পাশেই আমার ৫ শতাংশ জায়গা। জমির দলিলপর্চা,দখল ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র থাকা সত্যেও সম্প্রতি ওই জমিতে সায়েম মাতুব্বর গংরা জোরপূর্বক আমার জমি দখল করে বিল্ডিংয়ের কাজ শুরু করে।বাধা দিতে গেলে তারা ওই জমি নিজেদের দাবী করে গাছপালা কেটে নিয়ে যায় এবং গালিগালাজ ও হামলা চালাতে উদ্যত হয়। বাধ্য হয়ে ফরিদপুর বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে অভিযোগ জানালে ভ’মির নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ঊভয় পক্ষকে বিবাদমান এলাকায় যে কোন প্রকার কাজ করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়।

কিন্ত প্রতিপক্ষ সায়েম মাতুব্বর গংরা নির্মান কাজ অব্যাহত রাখে। মীর ইয়াসিন আরও বলেন,বিষয়টি নিয়ে এলাকায় সালিস-বৈঠক হয়েছে। প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমার জায়গা বুঝিয়ে না দিয়ে মাতুব্বরা বলেন, বিল্ডিংয়ের কাজ করা শেষ হোক পরে মীমাংসা করে দেওয়া যাবে। এদিকে গতকাল সংবাদ কর্মী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সরেজমিন তদন্ত করে। এ সময় দেখা যায় প্রতিপক্ষ( সায়েম মাতুব্বর) বিল্ডিংয়ের কাজ অব্যাহত রেখেছে। স্থানীয় কয়েকজন গন্যমান্য ব্যক্তির সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বললে তারা বলেন, দাবীদার মীর ইয়াসিনের জমি উক্ত খতিয়ানের মধ্যে রয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে এলাকায় সালিস-বৈঠকে নির্মান কাজ অব্যাহত রেখে যে কোন সময় মীমাংসার কথা বললে ইয়াসিন তা মানছেনা। মীর ইয়াসিনের জায়গা কোথায় কিংবা তার প্রাপ্য জায়গা বুঝিয়ে না দিয়ে নির্মান কাজ করা কতটা য়ৌক্তিক ,এ নিয়ে মাতুববররা তার সদুত্তর দিতে পারেননি।

সবর মাতুব্বর,ই¯্রাইল মুন্সী,মজিবর মাতুব্বর,জামাল মাতুব্বর সহ কয়েকজন গন্যমান্য ব্যক্তি জানান,এখানে মীর ইয়াসিনের জায়গা রয়েছে। জায়গার ঝামেলা মীমাংসা নাকরে বিল্ডিং নির্মান করা উচিৎ নয়। প্রতিপক্ষ সায়েম মাতুব্বরের সাথে কথা বললে তিনি বলেন,আমার জমিতেই আমি বিল্ডিং নির্মান করছি,তাছাড়া বিষয়টি নিয়ে গ্রাম্য মাতুব্বরা মীমাংসা করে দিয়েছে।এ দিকে গতকাল ভাঙ্গা থানা পুলিশের এস.আই জয়ন্ত চৌধুরী অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন। তিনি বলেন,কোন মতেই আদালতের আদেশ অমান্য করে নির্মান কাজ করা যাবেনা। প্রয়োজনীয় তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ
https://slotbet.online/